নেপালের মুস্তাংয়ের কোবান গ্রামে মিলল নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ

  • সর্বশেষ আপডেট : রবিবার, ২৯ মে, ২০২২
  • ৩১
ছবি: দ্য কাঠমান্ডু পোস্ট

অনলাইন ডেস্কঃ অবশেষে নেপালের মুস্তাংয়ের কোবান গ্রামে মিলল নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ। রবিবার সকালে পোখারা থেকে নেপালের জোমসমগামী একটি যাত্রীবাহী বিমান নিখোঁজ হয়। এই বিমানটিতে ক্রু সদস্যসহ ২২ জন আরোহী ছিলেন, এঁদের মধ্যে চারজন ভারতীয় নাগরিক বলে জানা যায়। রবিবার সকালে পোখারা থেকে নেপালের (Nepal) জোমসমগামী একটি যাত্রীবাহী বিমান নিখোঁজ হয়। এই বিমানটিতে ক্রু সদস্যসহ ২২ জন আরোহী ছিলেন, এঁদের মধ্যে চারজন ভারতীয় নাগরিক বলে জানা যায়। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটের পর থেকে বিমানটির সঙ্গে কোনও যোগাযোগ ছিল না।

কাঠমান্ডু পোস্টের মতে, বিমানটি পোখারা থেকে ১৯ জন যাত্রী নিয়ে উড়েছিল। জোমসম বিমানবন্দরের ট্রাফিক কন্ট্রোলার জানিয়েছেন, ঘাসায় একটি বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে, তবে তা নিশ্চিত করা হয়নি। যে এলাকায় শেষ যোগাযোগ হয়েছিল সেখানে হেলিকপ্টার পাঠানো হয়েছে। লেটে পাসে শেষ হেলিকপ্টারটির সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছিল। এই যাত্রীবাহী বিমানে ১৩ জন নেপালি, চারজন ভারতীয়, দু’জন জার্মান এবং তিনজন ক্রু সদস্য ছিলেন।

তারা এয়ার বিমান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমানটিতে থাকা চার ভারতীয়র নাম হল কুমার ত্রিপাঠি, ধনুশ ত্রিপাঠি, ঋত্বিক ত্রিপাঠি এবং বৈভবী বন্দেকর। এছাড়াও যাত্রীদের মধ্যে ছিলেন ইন্দ্র বাহাদুর গোলে, পুরুষোত্তম গোলে, রাজন কুমার গোলে, বসন্ত লামা, গণেশ নারায়ণ শ্রেষ্ঠ, রবীনা শ্রেষ্ঠ, রশ্মি শ্রেষ্ঠ, রোজিনা শ্রেষ্ঠ, প্রকাশ সুনুভার, মকর বাহাদুর তামাং, রামমায়া তামাং, সুকুমায়া তামাং, তুলসিদে। অশোক, মাইক গ্রিট, উয়ে উইলনার গ্রাফ।

তারা এয়ারের মুখপাত্র সুদর্শন বারতৌলাও নিশ্চিত করেছেন যে বিমানটি নিখোঁজ হয়েছে এবং অনুসন্ধান অভিযান চলছে। বিমানের পাইলটরা হলেন ক্যাপ্টেন প্রভাকর প্রসাদ ঘিমিরে, কো-পাইলট ইতাসা পোখারেল এবং এয়ার হোস্টেস কাসমি থাপা।

নেপাল পুলিশের মুখপাত্র আজ তককে জানান, এয়ারলাইন্সের বিমানটি যেটি মুস্তাং যাচ্ছিল তা নিখোঁজ। নেপালের সেনাবাহিনী হেলিকপ্টারের সাহায্যে নিখোঁজ বিমানটিকে খুঁজছে। মুস্তাং এলাকার পুলিশ, নেপাল প্রহরীর সেনারা তল্লাশি অভিযানে নিয়োজিত রয়েছে।

শেয়ার করুন

আরও খবর

মুজিববর্ষ সম্পর্কে জানতে নিচে ক্লিক করুন