নিজেদের অভিষেক আইপিএলেই চ্যাম্পিয়ন গুজরাট

  • সর্বশেষ আপডেট : সোমবার, ৩০ মে, ২০২২
| ছবি: সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্কঃ প্রথমবারের মত ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পঞ্চদশ আসরে খেলতে নেমেই চ্যাম্পিয়ন হলো গুজরাট টাইটান্স।


ক্রিকেটে বিশে^র সবচেয়ে ভেন্যু  আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে  অনুষ্ঠিত ফাইনালে গুজরাট ৭ উইকেটে হারিয়েছে প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়্যালসকে।
শিরোপা নির্ধারনী ফাইনালে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে রাজস্থান। ৪ ওভারে ৩১ রান তুলে প্রথম উইকেট হারায় রাজস্থান। যশ্ববি জয়সওয়াল ১৬ বলে ২২ রান করে আউট হন।এরপর  মিডল-অর্ডার ব্যাটাররা সুবিধা করতে পারেননি। অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন ১৪, দেবদূত পাডিক্কাল ২, ওয়েস্ট ইন্ডিজের শিমরোন হেটমায়ার ১১ ও রবীচন্দ্রন অশি^ন ৬ রান করে ফিরেন।
আসরের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ইংল্যান্ডের জশ বাটলার ৩৯ রানে আউট হলে বড় স্কোরের আশা শেষ হয়ে যায় রাজস্থানের। ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩০ রানের মামুলি সংগ্রহ পায় রাজস্থান।
গুজরাটের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া ৪ ওভারে ১৭ রানে ৩ উইকেট নেন।
১৩১ রানের জয়ের লক্ষ্যে শুরুটা ভালো হয়নি গুজরাটেরও। ২৩ রানের ২ উইকেট হারায় তারা। ঋদ্ধিমান সাহা ৫ ও অস্ট্রেলিয়ার ম্যাথু ওয়েড ৮ রান করে ফিরেন। তৃতীয় উইকেটে ৫৩ বলে ৬৩ রানের জুটি গড়ে দলের জয়ের পথ সহজ করেন ওপেনার শুভমান গিল ও পান্ডিয়া। জুটিতে ৩৪ রান অবদান ছিলো পান্ডিয়ার। ৩০ বল খেলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন তিনি।
পান্ডিয়ার বিদায়ের পর চতুর্থ উইকেটে ২৯ বলে অবিচ্ছিন্ন ৪৭ রান তুলে গুজরাটের জয় নিশ্চিত করেন গিল ও দক্ষিণ আফ্রিকার ডেভিড মিলার। ১১ বল বাকী রেখেই ফাইনাল জয়ের স্বাদ নেয় গুজরাট।
৪৩ বলে অপরাজিত ৪৫ রান করেন গিল। ১৯ বলে ৩২ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলেন মিলার। গিল-মিলার নিজ নিজ ইনিংসে ৩টি করে চার ও ১টি করে ছক্কা মারেন।
ফাইনালের সেরা হয়েছেন গুজরাটের অধিনায়ক পান্ডিয়া। আর টুর্নামেন্টের সেরা খেলোয়াড় হন রাজস্থানের বাটলার। ১৭ ইনিংসে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ ৮৬৩ রান করেন বাটলার। সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী ছিলেন রাজস্থানের স্পিনার যুজবেন্দ্রা চাহাল। ১৭ ইনিংসে ২৭ উইকেট নেন তিনি।
এই নিয়ে খেলোয়াড়  হিসেবে পাঁচবার আইপিএলের শিরোপা জয়ের স্বাদ পেলেন  পান্ডিয়া। আগের চারবার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। তবে অধিনায়ক হিসেবে প্রথমবার। তাই এই শিরোপাকে ‘বিশেষ’ হিসেবে  উল্লেখ করে পান্ডিয়া, ‘বিশ্বের যেকোন দলের কাছে এটা উদাহরণ হয়ে থাকলো। একটা দল হিসাবে পারফর্ম করলে,ভাল  দল তৈরি করতে পারলে, ভাল মানুষদের পাশে পেলে, অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটতে পারে। পাঁচবার ফাইনাল জিতেছি, আমি ভাগ্যবান। তবে এটা আমার কাছে অনেক বেশি স্পেশাল। কারন প্রথমবার অধিনায়ক হয়েই ট্রফি জয়।’
সংক্ষিপ্ত স্কোর :
রাজস্থান রয়্যালস : ১৩০/৯, ২০ ওভার (বাটলার ৩৯, জয়সওয়াল ২২, পান্ডিয়া ৩/১৭, কিশোর ২/২০)।
গুজরাট টাইটান্স : ১৩৩/৩, ১৮.১ ওভার (গিল ৪৫*, পান্ডিয়া ৩৪, মিলার ৩২*, বোল্ট ১/১৪, চাহাল ১/২০)।
ফল : গুজরাট টাইটান্স ৭ উইকেটে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : হার্দিক পান্ডিয়া (গুজরাট টাইটান্স)।
টুর্নামেন্ট সেরা : জস বাটলার (রাজস্থান রয়্যালস)।

শেয়ার করুন

আরও খবর

মুজিববর্ষ সম্পর্কে জানতে নিচে ক্লিক করুন