ঢাকা, বাংলাদেশ সময়ঃ ৩:২৮ পূর্বাহ্ণ সোমবার, ১৭ মে, ২০২১
জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী
অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
ছবি: সংগৃহীত

করোনাভাইরাসের মহামারীতে বিশ্বজুড়ে হতদরিদ্র মানুষের সংখ্যা ৪০ শতাংশ বেড়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

২০২১ সালে সাড়ে ২৩ কোটি মানুষের জরুরি মানবিক সাহায্য প্রয়োজন বলেও জানিয়েছে এ আন্তর্জাতিক সংস্থাটি। খবর ডয়েচে ভেলের।

এ জন্য জাতিসংঘের প্রয়োজন সাড়ে তিন হাজার কোটি মার্কিন ডলার।  মঙ্গলবার জাতিসংঘের ত্রাণবিষয়ক প্রধান কর্মকর্তা মার্ক লোকক এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, আগামী বছর যাদের মানবিক সাহায্যের প্রয়োজন পড়বে তারা সবাই যদি একটি দেশে বাস করতেন তা হলে সেটি বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম জনগোষ্ঠীর দেশ হতো।

জাতিসংঘের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিশ্বে প্রায় সাড়ে ২৩ কোটি মানুষকে ক্ষুধা, যুদ্ধ, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব এবং করোনাভাইরাস মহামারীর প্রভাব মোকাবেলা করতে হচ্ছে।

লোকক বলেন, আমরা সবসময়ই হতদরিদ্র ওইসব মানুষের দুই-তৃতীয়াংশের কাছে পৌঁছাতে চাই। বাকি যারা থেকে যাচ্ছে, তাদের রেড ক্রসের মতো অন্য দাতব্য সংস্থা সহায়তার চেষ্টা করবে, যাতে সেই শূন্যতা পূরণ করা যায়।

তিনি জানান, এ বছর দাতা দেশগুলো রেকর্ড ১ হাজার ৭০০ কোটি মার্কিন ডলার দান করেছে, যা দিয়ে নির্ধারিত লক্ষ্যের প্রায় ৭০ শতাংশ মানুষের কাছে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছানো সম্ভব হয়েছে।

তবে লোকক বলেন, ২০২১ সালের জন্য আমাদের তিন হাজার ৫০০ কোটি (৩৫ বিলিয়ন) ডলার প্রায়োজন, এটি বিশাল অঙ্কের অর্থ। কিন্তু ধনী দেশগুলো তাদের জনগণকে মহামারী থেকে সুরক্ষা দিতে যে পরিমাণ ব্যয় করছে, তার তুলনায় এই অর্থ খুবই সামান্য। এই মহামারী বিশ্বের সবচেয়ে ভঙ্গুর ও সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অর্থনীতির দেশগুলোকে ধ্বংস করে দিয়ে গেছে।

জাতিসংঘ ২০২১ সালে ৫৬ দেশে মানবিক ত্রাণ পৌঁছে দিতে ৩৪টি পরিকল্পনা করেছে। সংস্থাটি এর মাধ্যমে ১৬ কোটি মানুষের কাছে মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিতে চায়।

Adddd_Logo.png
 ইউনিভার্স ট্রিবিউন