ঢাকা, বাংলাদেশ সময়ঃ ৫:১৭ অপরাহ্ণ শনিবার, ৮ মে, ২০২১
অভিনেত্রী শাহনাজ পারভিন দুলারী
অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
অভিনেত্রী শাহনাজ পারভিন দুলারী। ছবি: সংগৃহীত

আশির দশক থেকে এখন পর্যন্ত খল চরিত্রে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে যাচ্ছেন অভিনেত্রী শাহনাজ পারভিন দুলারী। সুমিতা দেবী, মায়া হাজারিকা কিংবা রিনা খানের পরে দুলারী হচ্ছেন একজন শক্তিমান খল অভিনেত্রী। প্রায় ৮ শতাধিক ছবিতে কাজ করেছেন তিনি। পেয়েছেন বহু পুরষ্কার। তার এই দীর্ঘ ক্যারিয়ার মোটেই সহজ ছিলো না। সম্প্রতি চলচ্চিত্র পরিচালক মালেক আফসারীর ‘উল্টো চশমা’ নামে একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তার জীবনের বহু অজানা বিষয় শেয়ার করেছেন। 

অনুষ্ঠানের ১৭ মিনিটে বিয়ে নিয়ে মালেক আফসারীর প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘আমার কোন জীবনসঙ্গী নেই, আমি কোন জীবনসঙ্গী চাইও না। বিয়ে করার মতো কাউকে পাইনি; তাই আমি বিয়ে করিনাই বাস। আমি যে রকম পুরুষ জীবনে চাই, সে রকম পাইনি বলতে গেলে। যে আমার জীবনে আসবে তাকে আমার মনে মতো হতে হবে। আমাকে অভিনয় করতে দিতে হবে।’ 

তিনি বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই অভিনয় অনেক ভালো লাগতো। দেখতাম- রাজ্জাক ভাই, শাবানা আপা, কবরী আপাকে অভিনয় করতে। তখন থেকেই আসছে অভিনয়ের প্রতি ঝোঁক। পঞ্চম শ্রেণিতে ওঠার পর একদিন স্কুল পালিয়ে ‘মালেকা বানুর’ শুটিং দেখতে গিয়েছিলাম। এরপর বাড়িতে ফেরার পর মায়ের মার খেলাম। ওই মার খাওয়ার পর থেকেই মনে জিদ চেপে গেলো আমি অভিনয়ই করবো। মূলত বান্ধবীর মামার হাত ধরেই আমার সিনেমায় আসা। কিছুদিন পর বাড়ি থেকে চম্পট! চলে আসি এফডিসিতে। সেখানে এসে পরিচালক সিরাজুল ইসলামের সাথে দেখা হয়। আমি তাকে অনুরোধ করি; আমি তো আর বাড়ি ফিরে যেতো পাবো না সুতরাং আপনি আমাকে কাজ দেন। তখন তিনিই আমাকে প্রথম কাজ দেন।’ 

এই অভিনেত্রী বলেন, ‘প্রথমে আমি কমেডি দিয়েই অভিনয় শুরু করি। ৫ বছরে আমার ১৩০টি কমেডি ছবি রিলিজ। এরপর আমি খল চরিত্র শুরু করি। এখনো সেটাই চলছে। 

তবে এর মাঝে আমি বাড়ি ফেরে গেলে আমার বাবা-মা আমাকে গ্রহণ করলেও আমার কাকারা আমাকে গ্রহণ করেনি। তাই তখন থেকেই আমি তাদের থেকে আলাদা।’ 

পরোপকারী ও সমাজসেবক হিসেবে তার যথেষ্ট সুনাম রয়েছে। সম্প্রতি তিনি কাজ করেছেন পরিচালক কাজী হায়ত ও চিত্রনায়ক শাকিব খানের ‘বীর’ সিনেমায়।

 ইউনিভার্স ট্রিবিউন