ভারতের কেরালা রাজ্যে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় দুই পাইলটসহ কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহতের মধ্যে ১১২ জনকে স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। উড়োজাহাজে মোট ১৯১ জন আরোহী ছিলেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, উড়োজাহাজটি দুবাই থেকে ফিরছিল। কেরালার পুলিশ প্রধান জানিয়েছেন, উড়োজাহাজে উদ্ধারকাজ চলছে। ধ্বংসাবশেষের ভেতরে এখনো ৪ জন আটকে আছে। বেশির ভাগ আরোহীকেই উদ্ধার করা হয়েছে। আহতদের মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা গুরুতর। দুই পাইলটই দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন।

উড়োজাহাজটি ১৯১জন আরোহী নিয়ে দুবাই থেকে ফিরছিল। ছবি: রয়টার্স

উড়োজাহাজটি ১৯১জন আরোহী নিয়ে দুবাই থেকে ফিরছিল। ছবি: রয়টার্সসংশ্লিষ্ট বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, উড়োজাহাজটিতে ১৭৪ জন প্রাপ্তবয়স্ক যাত্রীসহ ১০টি শিশু ছিল। এ ছাড়া দুই পাইলট ও পাঁচজন ক্রু ছিল ফ্লাইটটিতে। এটি ছিল বোয়িং ৭৩৭ মডেলের উড়োজাহাজ।

এয়ার ইন্ডিয়ার উড়োজাহাজটি স্থানীয় কোঝিকোড়ে বিমানবন্দরে অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে দুই টুকরা হয়ে যায়। কোঝিকোড়ে বিমানবন্দরের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, অবতরণের সময় স্থানীয় সময় রাত সোয়া ৮টার দিকে উড়োজাহাজটি রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে। উড়োজাহাজটির অবতরণের সময় ঘটনাস্থলে প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছিল। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, ভেঙে দুই টুকরা হয়ে গেলেও উড়োজাহাজটিতে আগুন ধরেনি। এই ঘটনার পর থেকে বিমানবন্দরটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: রয়টার্স

হতাহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: রয়টার্সকেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, উদ্ধারকাজ পরিচালনার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এই ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে টুইট করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি লিখেছেন, ‘উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। আশা করি, আহতরা দ্রুত সেরে উঠবেন।’

Comments are closed.